থিসিস

বাটার পেপার এ থিসিস এর প্রথম সাইট আঁকতে বসছি,

মাথার ভেতরে ওলট পালট স্বপ্নের সুতো বুনছি,

গীতিকারের মন থাকে কথায় কথায় আর ব্যথায় ব্যথায়,

গরমে শান্তি নেই,এয়ারকন্ডিসশনার তবু হাতের আঁকায়;

কষ্টের টাকায় কেনা স্বপ্নের বই গুলো আনতে দেরি হল একদিন,

ফার্স্ট ক্লাস মিস হল, বাসের হাওয়ায় গেল পুরো দিন,

শুনলাম নাকি আমার থিসিস উড়েও যেতে পারে!

উড়তে দেবো না, জীবন উড়লেও মনের জোরে।

এত জোয়ার ভাঁটা কাটিয়ে এসেছি কি ওড়ানর তরে,

এত আঘাতের ব্যঘাত না ঘটালেই নয় থিসিস এর পরে।

ভেজালের দুনিয়ায় মাস্কিং টেপ টাও করে গোলমাল,

আঠায় আঠা কম, আই।সি।ইয়ু এর রোগীর মত বেসামাল।

অর্থের দণ্ড দিয়ে চলেছি বছর বছর,

আর্কিটেকচার এই হয়ে গেল সব টাকা দৃষ্টি গোচর।

কেউ বুঝল না এই আমি টা খাওয়া নেই, দাওয়া নেই, ছুটছি।।

থিসিস আমি এটাই করবো যেটার স্বপ্ন বুনছি।।

এক পা এগোলেও বাঁধা অনেক, বাঁধার পর বাঁধা,

অভ্যাস হয়ে গেছে ,এখন আর নেই কোন কাঁদা।

ভ্যাকেসন এ গেলাম বাড়িতে, মাথায় পেলাম আঘাত,

ডক্টর বললো থিসিস করো না ,সব কাজ করে দাও বাদ।

মনে মনে আমি বলি, হু দ্য হেল ইয়ু আর?

থিসিস হবে এই মাথা দিয়েই, ঈশ্বর আছেন আমার।

স্বজন বন্ধু প্রিয়জনের দল গেল চলে বহুদূর,

থিসিস টা পেরিয়ে গঙ্গার পাড়ে গিয়ে কণ্ঠে তুলবো সুর।

এক জীবন অর্থের বস্তা মাথায় করে থিসিস আমার এলো,

ঈশ্বর নিশ্চয়ই দেখবেন সব, এতদিন তো গেল।

ডক্টর বলেছে কোন বিষয়ে চিন্তা করবে না একদম-

বোঝাতে পারি নি চিন্তা না করে ফেলা যায় কি এক দম?

ডক্টর আঙ্কেল বুঝল না, মা বাবা বুঝে ফেলেছে,

আত্মার আত্মীয় কে কতটা সময় সেটা বলেছে।

থিসিস উড়ে তো উড়ুক না, ওর ও তো সাধ হয়,

রানার এর এম ডি কে প্রমিজ করেছি, উড়লেও নেই ভয়।

কিছুক্ষন উড়িয়ে আবারো ফিরিয়ে আনবো আমার খাঁচায়,

ঈশ্বর যদি মুখ তুলে তাকান আর থিসিস যদি বাঁচায়!

সুস্মিতা বিশ্বাস সাথী

১/০৬/২০১৫

৯.০০-৯.১৫ রাত।

Share:
Copyright © Susmita Biswas Sathi | Designed and Developed By: Marrow IT