ঘর বানানো মানুষ

জীবন যখন ফসকে গেলো

বাঁচতে চাওয়া কেন?

প্রজাপতি উড়ে গেলো

পাখা টা আটকানো ।

অগোচরে লুকিয়ে রাখা

সেসব ঘুম পাড়ানো,

ঘুম ঘোরে ডুবে থাকা

চুপচাপ ঘর সাজানো।

ঘর আছে গ্রহের দোষ

ঘরের মানুষ নেই,

ঘর বানানো মানুষটা কে

বুঝল না তো সেই ।।

লাগবে না আকাশ দেখা

লাগবে না কোন ভোর,

অন্ধ রাতে কাঁদব একা

কেউ নেবে না খবর।

তাও তো ভালো আমার আমি

ফসকে চলে যাই না-

পায়ের নিচে শ্যাওলা মাটি

তবু পড়ে যাই না।

ঘর আছে গ্রহের দোষ

ঘরের মানুষ নেই,

ঘর বানানো মানুষটা কে

বুঝল না তো সেই ।।

কি আর করা সবার মতো

পারিনি তো হতে,

আঘাত পেয়ে মর্মাহত

প্রজাপতির শোকে।

মমি করা প্রজাপতি

দেখবে না এই চোখ

আমার ঘরে একলা থাকি

আমি আমার ক্ষোভ।

ঘর আছে গ্রহের দোষ

ঘরের মানুষ নেই,

ঘর বানানো মানুষটা কে

বুঝল না তো সেই ।।

ঘর বানায় যে- সেও চায়

একটা সুখের ঘর,

প্রজাপতি নাই বা উড়ুক

একলা আমার ঘর।

১/০৯/২০১৫

সুস্মিতা বিশ্বাস সাথী

৯.১৩-৯.১৯।রাত।

Share:
Copyright © Susmita Biswas Sathi | Designed and Developed By: Marrow IT